না, আমরা "মহাপুরুষ" টাইপের কেউ না। অবশ্যই মানবীয় কামনা-বাসনার উর্ধ্বে নই আমরা।

টিভিতে, মুভিতে, পথেঘাটে সুন্দরী মেয়ে দেখলে ঘুরে আরেকবার তাকাতে আমাদেরও ইচ্ছে করে। এক সময়ের হার্টথ্রব গায়ক/গায়িকার ভীষণ পছন্দের কোন গানের অংশ হঠাৎ কোথাও শুনলে ইচ্ছে করে সাথে গলা মেলাই। খেলার দিন আশেপাশের বাসা থেকে ভেসে আসা স্লোগান আর চিৎকার পারলে টেনে নিয়ে যেতে চায় শরীরটাকে টিভি পর্দার সামনে।

ন্যায্য সময়ের আগে "আপাতঃ অসম্ভব" কাজটি নিজ দায়িত্ব হিসেবে করে দেয়ার পরে সামনের "কৃতজ্ঞ" ভদ্রলোকের "উপহার" হিসেবে বাড়িয়ে দেয়া সাত অংকের ব্যাংক চেক আমাদের লোভকেও নাড়া দেয়। স্ত্রীর পছন্দের স্বর্ণের গহনার কাল্পনিক ছবি মাথার ভেতর এসে ভর করলেও প্রাণপণ ভুলে থাকার চেষ্টা করি। প্রভিডেন্ট ফান্ডের সাত অংকের সুদের টাকা ছেড়ে দেয়ার আগ মুহূর্ত পর্যন্ত চুম্বকের মতো আমাদেরকেও টানে।

"…এটা তো সুদ না; ইন্টারেস্ট মানে লাভ। এই টাকা দিয়ে মায়ের শখের চার রুমের একতলা বিল্ডিং করে দিয়ে অসীম সওয়াবের ভাগীদার কেন হচ্ছো না তুমি?" – শাইত্বানের এমন প্ররোচনার বিপরীতে জয়ী হতে অনেক কষ্ট'ই করতে হয় আমাদের।

অফিস শেষে ক্লান্ত আমাদের রিক্সার পাশ দিয়ে লক্ষ টাকার গাড়ীগুলো যখন ধোঁয়া উড়িয়ে বের হয়ে যায়, তখন আমাদেরও কিছুটা হলেও আফসোস হয় সকালের সবিনয়ে ফেরত দেয়া ঘুষের টাকার জন্য। ঈদের বাজারে সাধ এবং সাধ্যের সীমার মধ্যে যখন ব্যালান্স করতে পারি না, বড় বড় শপিং মলের চোখ ধাঁধানো দোকানগুলোর ভেতর থেকে 'নীতি' বিসর্জন দেয়া বন্ধুটির অট্টহাসি তখন আমাদেরও বুকে শেলের মতো এসে বিঁধে।

এতকিছুর পরেও সারা দিনের ক্লান্তির ধকল শেষে একটা "সামাজিক মুভি" দেখার ইচ্ছাকে গলাটিপে মেরে পরিবারকে নিয়ে ইসলামিক আলোচনাই ধীরে ধীরে প্রিয় হয়ে উঠেছে আমাদের কাছে। দিন শেষে বিছানায় গা এলিয়ে দিয়ে মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি আদায়ের চেষ্টায় "আলহামদুলিল্লাহ" – বলতেই তৃপ্তি পাই আমরা আজকাল।

নিষিদ্ধ বিষয়ের প্রতি মানুষের মুগ্ধতা এবং নেশা – দুটোই সহজাত এবং আমরা অবশ্যই মানুষ। তারপরেও আমরা নিষিদ্ধ বিষয় সমূহ থেকে বেঁচে থাকার আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছি শুধুমাত্র কয়েকটি কারণে,

মহান আল্লাহ তা'আলার 'আযাবকে আমরা ভয় করি। ক্বিয়ামাতের বিভীষিকাময় দিনে আমরা রাসুলুল্লাহ ﷺ এর শাফা'আত কামনা করি। এবং আমরা ক্ষণস্থায়ী পৃথিবীর কৃত্রিম চাকচিক্যের চেয়ে আখিরাতের অনন্ত সুখকেই প্রাধান্য দেয়ার চেষ্টা করি। সপরিবারে মন-প্রাণে লালন করি জান্নাতের আশা।

আমরা বিশ্বাস করি – দুনিয়াকে হয়তো আমাদের জন্য তৈরী করা হয়েছে। কিন্তু আমাদেরকে সৃষ্টি করা হয়েছে আখিরাতের জন্য। মহান আল্লাহ তা'আলা সহজ করে দিক আমাদের প্রচেষ্টাকে। অসংখ্য ভুলে-ভরা আমাদের সামান্য চেষ্টাগুলোর ভুলত্রুটি ক্ষমা করে কবুল করে নিক মহান আল্লাহ।