প্রতিদিন নানা মাধ্যমে মৃত্যুর খবর পাই আমরা। তারপরেও সম্ভবত মৃত্যুকেই আমরা সবচেয়ে বেশি ভুলে থাকি। "প্রতিটি জীবনের মৃত্যু হবেই" এই সত্য নিয়ে কারো মাঝে বিতর্ক নেই। মৃত্যু যখন-তখন হতে পারে এটাও সকলেই মানি কিন্তু তাও মৃত্যুকেই সবচেয়ে বেশি ভুলে থাকি আমরা। ভুলে থাকি বলেই হয়তো মানুষরা অনেক নিষিদ্ধ কাজ করতেও বিন্দুমাত্র ভয় পাই না।

যেমন ধরা যাক নির্দিষ্ট কিছু ধরনের অপরাধের কথাই বলি:

(১) যেই স্ত্রী পরকীয়া করছে, তার পুরুষ-সঙ্গীর মৃত্যু হতে পারে তার একান্ত সান্নিধ্যে থাকা অবস্থাতেই। কি বিপদেই না পড়বে তখন সেই মহিলা তার পুরুষ-সঙ্গীর লাশ নিয়ে!

(২) একইভাবে যেই husband official ট্যুরের নাম করে girl-friend নিয়ে কোথাও অবস্থান করছে, তার girl-frined টয়লেটে পিছলে মাথার আঘাতে মারা যেতে পারে। ব্যস, উনি এবার পড়বে মহা বিপদে girl-friend-এর লাশ নিয়ে। হোটেল কর্তৃপক্ষও ছাড়বে না। তারপর সে হয়তো খুনের আসামীও হয়ে যেতে পারে!

(৩) একই বিপদে পড়তে পারে সেই সকল কিশোর/কিশোরী ও তরুণ/তরুণীরাও যারা বন্ধুর বাসা খালি পেলেই boy friend/girl friend নিয়ে একান্তে সময় কাটাতে উপস্থিত হয়। উক্ত বাসায় থাকা অবস্থায় উভয়ের কোনো একজনের মৃত্যু হলে নিজ বাসায় আসতে দেয়া বন্ধুটিও পড়বে মহা বিপদে। বন্ধুর অনৈতিক কাজে সাহায্য করতে গিয়ে যৌথ খুনি হয়ে যেতে পারে সেও!

(৪) ঐ সকল লোকেরা যারা কিনা গোপনে পতিতাদের কাছে যায়, সেও মরতে পারে পতিতালয়েই। কি অবস্থাটাই না হবে, যখন তার স্বজন মৃতদেহ সংগ্রহ করবে পতিতালয় থেকে!

(৫) পর্ণগ্রাফি দেখতে দেখতে মৃত্যু, এটা একবার ভেবে দেখেন। পরিবারের সদস্যরা আবিষ্কার করবে যে, তার প্রিয়জনের মৃত্যু হয়েছে কিন্তু তার কম্পিউটারে/মোবাইলে/ট্যাবে পর্ণগ্রাফি প্রদর্শিত হচ্ছিলো! কিংবা কর্মক্ষেত্রে মনিটরটা হয়তো একটু আড়াল করা আছে, কেউ দেখতে পায় না। কাজের ফাঁকে একটু পর্ণগ্রাফি। এমন সময় যদি চেয়ারে বসেই মারা যায়। তার কলিগগণ দেখবে যে, সে অফিসে বসে পর্ণগ্রাফি দেখতে দেখতে মারা গেছে!

যদিও নির্দিষ্ট এক ক্যাটেগরির অপরাধের কথাই লিখলাম, আসলে যে কোনো অবস্থাতেই মৃত্যু হতে পারে। ওদিকে রাসুলুল্লাহ্ (ﷺ) বলেছেন, "প্রত্যেকটি মানুষ সেই একই অবস্থায় পুনরুত্থিত হবে যেই অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।" এবং তিনি (ﷺ) আরো বলেছেন যে, মৃত্যু আমাদের খুবই নিকটবর্তী।


Sunday, 26 July 2015 at 01:52